বৃহস্পতিবার ২১ আগস্ট ২০১৪, ৬ ভাদ্র, ১৪২১ সাইনইন | রেজিস্টার |bangla font problem
sadad

আমার সাম্প্রতিক মন্তব্যComment

সাদাত শুভ

রাতের ঘুমটা ভাল হয়নি, আধো রাতে কেন যে ঘুম ভেঙ্গে গেল তাও বুঝতে পারছি যে আজ সারা দিন খারাপ কিছু ঘটবে। ঘরিতে চোখ পরল অনেক পরে, দেখি ৮ টা বেজে গেছে, অফসে জেতে হলে এখন উঠতে হবে। শিতের সকালে বিছানাটা বড় আপন মনে হয় তাই উঠতে ইচ্ছা করছিল না। ঠিক করলাম আজ অফিস যাব না। হাতের কাছে ছিগারেটের প্যাকেট টা পেয়ে গেলাম, ধুয়া ছরালাম পুরা রুমে, মাথা অনেকটা হাল্কা লাগছিল। ব্যাচেলর লাইফ এর পূর্ণ মজা পেতে হলে একা থাকার বিকল্প নাই।\n\nহঠাৎ ফোন বেজে উঠলো, অফিস এর ফোন নিশ্চয়, মোবাইলটা বেশ দূরে টেবিলে রাখা, ধুর আজ যত ফোন এ আসুক বিছানা থেকে উঠা যাবে না। এভাবে কখন যে ১১ টা বেজে গেল খেয়াল ই করি নি। উঠে গোসল করে অনেক ফ্রেস লাগছিল। ভাবলাম একবারে বের হব অনেক দিন স্টার এ খাই না, গলিতে বের হয়ে খেয়াল হল মোবাইলটা চেক করা দরকার, আমার বাসার গলির নামটা কিন্তু চমৎকার, পাঠশালা গলি। মোবাইলটা চেক করে দেখলাম আম্মু ফোন করেছিলেন, তাকে কল করলাম, কেউ ফোন ধরলনা। স্টার এ পৌঁছে কিছুটা বিরক্ত হলাম মনে হল কোন বিএতে এসেছি, এত মানুস, এরা সবাই ব্যাচেলর কিনা! নেহারি আর পরাটা পেয়ে কিছুটা সস্তি আসল মনে। আবার ফোন বেজে উঠল, ওপাশ থেকে আম্মুর মায়াময় আওয়াজ পেলাম, তার মত আদর জরানো ভাবে আর কেও কথা বলতে পারে না। শুনলাম গ্রামের এক আত্মীয় ঢাকা মেডিকেল এ অসুস্থ, তাকে দেখতে যেতে হবে। ছোট বেলা থেকে এ ডাক্তার আর হাসপাতাল দুইটাকে সমান ভয় পাই। শুনে বিরক্ত লাগল কিন্তু কিছু করার নেই, যেতে হবে। যে ফুরফুরে মেজাজ এ বের হয়েছিলাম সেটা নষ্ট হয়ে গেল।\n\nঢাকা মেডিকেল এ পৌছাতে ১ টা বেজে গেল। অনেক খুজে আত্মীয়কে দেখে বের হতে ৩ টা বেজে গেল, অনেক অসহ্য মাথা বেথা শুরু হবে মনে হল। কলেজ গেট এর পাসে ডাব বিক্রি করছিল এক কিশোর। ভাবলাম ডাব খাই হয়ত ভাল লাগবে। ডাব কিনে শহিদ মিনার এর সামনে বসে পরলাম।ডাব খেয়ে সত্যি ভাল লাগা শুরু করল। হটাত চিৎকার চেঁচামেচিতে আমার দৃষ্টি পরল কলেজ গেট এর দিকে, সুন্দর শাড়ি পরা এক তরুনির হাত কেটে গেছে, চুরি ভেঙ্গে হাত কেটে গেছে, দৃশ্যটা কেন জানি আমার কাছে অদ্ভুত সুন্দর লাগছিল, আমি পকেট থেকে মোবাইল বের করে একটা ছবি তুলে ফেললাম, আমি ছবি তুলেছি মেয়েটা খেয়াল করে ফেলেছে, আমার সামনে এসে দাঁড়াল আমিও বসা থেকে উঠে দারালাম অদ্ভুত একটা অনুভুতি হতে লাগল মুহূর্তের জন্য মনে হল পৃথিবী স্তব্ধ হয়ে গেছে। হঠাৎ আমার কল্পনার অবসান ঘটাল সেই তরুনি, আমি দেখলাম রাগে ও লাল হয়ে আছে, আমি আমার অপরাধ বুঝতে পারলাম না,\n“আপনি কি মানুস?”\n“আমার হাত কেটে গেছে এটা কি খুব সুন্দর কোন দৃশ্য?”\nএই যে আমি আপনার সঙ্গে কথা বলছি?\nআপনি কি সাধারন জ্ঞান রাখেন মাথায়?\nনাকি রাস্তায় মেয়ে দেখলেই ছবি তুলতে হবে?\n\nআমি স্বাভাবিক চিন্তা করি বলেই আমি ছবিটা তুলেছি, এটা হইত সবার কাছে খুব সাধারন কোন ঘটনা কিন্তু আমার কাছে জীবনের অন্যতম, আমি এত অদ্ভুত সুন্দর কোন ছবি আজ পর্যন্ত দেখি নি, \n\nমেয়েটা অনেক্ষন নির্বাক হয়ে তাকিয়ে ছিল আমার দিকে, ডাব ওয়ালা আমাদের পুরা বেপার টা খুব মজা নিএ দেখছিল, মেয়েটা রাগে আর ক্ষোভে চলে গেল।\n\n“ভাইজান, আফা কিন্তু ডাকতর,”\nতাই নাকি? আমি একটু চিন্তাই পরে গেলাম।\n\n(চলতে থাকবে............।)\n
  • ঢাকা
  • ১ বছর, ৭ মাস, ১ দিন, ১৭ ঘন্টা, ২২ মিনিট
  • ০ টি
  • ০ টি

আমার যত লিংকStar

আমার যত ফেভারিটStar

পছন্দের যত পোস্টStar

পূর্বতন পোস্ট Star

সাম্প্রতিক মন্তব্যComment