বৃহস্পতিবার ১৭ এপ্রিল ২০১৪, ৪ বৈশাখ, ১৪২১ সাইনইন | রেজিস্টার |bangla font problem


জলবায়ু পরিবর্তন:-:-:-#

১। পৃথিবী থেকে প্রতিমূহত্ব যাহা ফুরিয়ে যায় ফিরে এসে এক বিন্দু পূর্ন হয় না। যাহার উত্তর নিম্ন রুপ:
পৃথিবীর বুকে দুটি পক্ষ নিয়ে যাত্রা। যাহারএক পক্ষ সংখ্যা লঘু এবং ২য় পক্ষ সংখ্যা গরিষ্ট। সংখ্যা গরিষ্ট তিন ভাগ হওয়ায় তরল খনিজ ভান্ডে নির্গত পর্দাথ অফুরন্ত মনেকর। কিন্তু গরিষ্টতা হ্রাস প্রতি মুহত্ব।কোটি কোটি ঘনফুট তরল পদার্থ ইঞ্জিনে জ্বালানী শক্তি বিক্রিয়ায় কার্বনে রুপান্তর। এই কার্বন ফিরে এসে কোন দিন এক বিন্দু তরলে পরিনত হবে না। তরল জ্বালানী ক্রিয়া বিক্রিয়ায় একমাত্র ধোয়াই হয়।তরল জ্বালানীর ধোয়া কোন দিন এক বিন্দু তরলে পরিনত হতে পারে না । বরং ধোয়া বায়ুমন্ডলে মিশে কার্ব হাইড্রো বিষ গ্যাসে রুপান্তর হয়। গোড়া থেকে যে মন্তব্য কোটি কোটি যুগে বিভিন্ন উপাদান বা জীব চাপা পরায় পচন ক্রিয়ায় তরল খনিজ পদার্থ। কিন্তু তাই যদি হয় তবে সে তরল ভান্ড তো ফুরিয়ে যাওয়ার কথা বা উত্তলোন ভান্ড তো ফাকা হওয়ার কথা এবং ফাকা হয়ে উপর থেকে ভেংগে নিচে ডাবিয়ে যেত কয়লা খনির মত। কয়লা উত্তলোন স্থান যেমন ফাকা হয়ে যায় তেমনি ফাকা হওয়ার কথা। কিন্তু তা না হয়ে তরল জ্বালানী ভান্ডে একগতি প্রবাহ বিরাজমান সেই উত্তলোন আবিস্কার থেকে। উত্তলোন শুরু থেকে এ পর্যন্ত অন্তত কয়েকটি নদীর মত বা ভৌগলিক কয়েকটি দেশের মত খনিজ ভান্ড ফাকা হওয়ার কথা। তা না হয়ে কয়েকটি দেশ উপর থেকে রস ভান্ডার ফাকা বা নিঃশ্ব হয়ে যাচ্ছে। বিশ্বাস জ্ঞান অপব্যাখ্যায় ভরপুর। হয়ত প্রমান চাইবে মরুভূমি তাহার সাক্ষ্য প্রমান।
০ টি মন্তব্য