শুক্রবার ২২ আগস্ট ২০১৪, ৭ ভাদ্র, ১৪২১ সাইনইন | রেজিস্টার |bangla font problem


এশিয়ার সর্ববৃহৎ প্রোগামিং আসর "এসিএম-আইসিপিসি" ৮ ডিসেম্বর ঢাকায়।


আগামী ৮ ডিসেম্বর ঢাকার রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে অনুষ্ঠিতব্য এসোসিয়েশন অব কম্পিউটিং মেশিনারিজ ইন্টারন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ‘এসিএম-আইসিপিসি’ ২০১২ এর প্রস্ততি পর্বের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্বাগতিকতায় এবারের আয়োজন হবে এশিয়ার মধ্যে এ যাবত কালের সবচেয়ে বড় আঞ্চলিক প্রতিযোগিতার আসর এবং বাংলাদেশের ইতিহাসেও এই প্রথমবারের মত এত বৃহৎ পরিসরে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

চূড়ান্ত পর্বে বিজয়ী তিনটি দল আগামী ২০১৩ সালের জুন ৩০ থেকে জুলাই ৪ তারিখ রাশিয়ার সেইন্ট পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাগতিকতায় অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ফাইনালস ২০১৩ এর মূলপর্বে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। এবং গত ১০ নভেম্বর বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম বারের মত সর্ববৃহৎ অন লাইন কনটেস্ট প্রিলিমিনারী রাউন্ডে ৬৪টি সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন আইটি ইন্সটিটিউটের ৪০০টি দল অংশগ্রহণ করে।

৮ ডিসেম্বর মূলপর্বে বাংলাদেশ ছাড়াও চীন এবং ভারত থেকে আসা তিনটি দল সহ মূলপর্বে ১৫০ টি দল অংশ গ্রহন করবে। “এসিএম-আইসিপিসি ঢাকা অঞ্চল ২০১২ এর স্মারক পুরস্কার হিসেবে শীর্ষস্থানীয় ২০টি দলকে নগদ অর্থের পাশাপাশি সনদ প্রদান করা হবে। চ্যাম্পিয়ন দল এসব নিয়মিত পুরস্কারের পাশাপাশি অতিরিক্ত পুরস্কারের স্বীকৃতি স্বরুপ বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মত চ্যাম্পিয়ন ট্রফি পাওয়ার গৌরব অর্জন করবে।”


এসিএম-আইসিপিসি ঢাকা রিজিওনাল ২০১২ এর মূল পর্বে বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মোহাম্মদ জাফর ইকবাল, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটির শাহরিয়ার মনজুর, মুক্ত সফটওয়ার লিমিটেডের মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান। আয়োজক কমিটির কো-চেয়ার এর দায়িত্বে রয়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) এর অধ্যাপক এম কায়কোবাদ এবং এসিএম কাউন্সিল বাংলাদেশের প্রধান সমন্বয়কারী এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আবুল এল হক।

সিএম-আইসিপিসি সম্পর্কে বিস্তারিত জানত।
এসিএম-আইসিপিসি’র আপডেট পেতে।
সূত্রঃ টেক.প্রিয়.কম
২ টি মন্তব্য
Rabbani রব্বানী চৌধুরী০৩ ডিসেম্বর ২০১২, ২৩:০৭
সংবাদটি ও ছবিগুলি শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। শুভেচ্ছা রইল। ভালো থাকবেন।
KohiNoor মেজদা০৪ ডিসেম্বর ২০১২, ০০:৪০
আমার ছেলেকে দেখাইলাম। ভাল উদ্যোগ। ধন্যবাদ