বৃহস্পতিবার ২৪ জুলাই ২০১৪, ৯ শ্রাবণ, ১৪২১ সাইনইন | রেজিস্টার |bangla font problem


মেঘবালিকার জন্য রূপকথা- জয় গোস্বামী



(বহুদিন আগে, একজন এই কবিতা আর একগুচ্ছ গোলাপ আমায় দিয়েছিলো।
বহুকাল পর, আজ হটাৎ তাহারে মনে পড়লো।
আমার অত্যন্ত প্রিয় এই কবিতাটি তাই আপনাদের জন্য শেয়ার করলাম)


আমি যখন ছোটো ছিলাম
খেলতে জেতাম মেঘের তলে,
একদিন এক মেঘবালিকা প্রশ্ন করলো কৌতূহলে,
"এই ছেলে , নাম কিরে তোর?"
আমি বললাম, "ফুস মন্তর"
মেঘবালিকা রেগেই আগুন, " মিথ্যে কথা, নাম কি কখনো হয় এমন?"
আমি বললাম, " অবশ্যই হয়, আগে আমার গল্প শোন"
সে বলল," শুনবো না, যা''
আমি বললাম, " তোমার জন্য নতুন করে লিখব তবে"
সে বলল, " সত্যি লিখবি?"

লিখতে লিখতে সবই যখন সবেমাত্র দু'চার পাতা
হতাৎ তখন ভূত চাপল আমার মাথায়।
খুঁজতে খুঁজতে চলে গেলাম ছেলেবেলার মেঘের মাঠে।
একজনকে মনে হল এরই মধ্যে অন্যরকম
এগিয়ে গিয়ে বলি তারে," তুমিই কি সেই মেঘবালিকা, তুমিই কি সেই?"
সে বলল," মনে নেই তো, আমার এসব মনে নেই তো।
আর হ্যাঁ, শোন,এখন আমি মেঘ নই আর।
সবাই এখন বৃষ্টি বলে ডাকে আমায়।"
বলেই হতাৎ এক পশলায় চুল থেকে নখ আমায় পুরো ভিজিয়ে দিয়ে
অন্য অন্য বৃষ্টি বাদল সঙ্গে নিয়ে,
মিলিয়ে গেল খরস্রোতে।
মিলিয়ে গেল দূরে কোথাও।
আমি কেবল বসেই রইলাম
ভেজা শুধু এক কাপড়ে গাছের তলায়।

বসেই রইলাম
বৃষ্টি নাকি মেঘের জন্য।
৪৪ টি মন্তব্য
Ilannita ইলা২৫ মে ২০১২, ২৩:৪৬
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৫ মে ২০১২, ২৩:৪৮
ধন্যবাদ।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৫ মে ২০১২, ২৩:৪৯
Ilannita ইলা২৫ মে ২০১২, ২৩:৫২
খুব সুন্দর লিখেছেন
Ilannita ইলা২৫ মে ২০১২, ২৩:৫৪
ধন্যবাদে কাজ হবে না গিফট দেন
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:০৭
আপাতত চা খান এক কাপ
গিফট কি দেয়া যায় ভেবে দেখি
Ilannita ইলা২৬ মে ২০১২, ০০:১৪
তাড়াতাড়ি ভাবেন
চা'য়ে লবন কম হইছে
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:২৪
লবন কম খাওয়া ভালো।
Rabbani রব্বানী চৌধুরী২৫ মে ২০১২, ২৩:৪৮
ডাক্তারী ছেড়ে এবার কবিতা।

চমৎকার হয়েছে।
" অন্য অন্য বৃষ্টি বাদল সঙ্গে নিয়ে,
মিলিয়ে গেল খরস্রোতে।
মিলিয়ে গেল দূরে কোথাও।
আমিই কেবল বসেই রইলাম
ভেজা শুধু এক কাপড়ে গাছের তলায়।"


ধন্যবাদ। শুভেচ্ছা রইল। ভালো থাকবেন।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৫ মে ২০১২, ২৩:৫০
ধন্যবাদ রব্বানি ভাই।
ভালো থাকবেন।
mukto75 মুক্তমন৭৫২৫ মে ২০১২, ২৩:৫১
কবিতাও চলবে ডাক্তার সাব
ভালই লিখেছেন
চালিয়ে যান, নো প্রবলেম।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:০৮
ধন্যবাদ।
shabumostafiz সেবু মোস্তাফিজ২৫ মে ২০১২, ২৩:৫৪
কবিতাটির জন্ম ইতিহাস জানালে খুশি হতাম
আগে কোথাও কি দেখেছি তারে জবাব পেতাম।
.................................................
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:১৯
ভাইয়া আমিতো আর আপনার মতো সুন্দর করে লিখতে পারি না, তাই আমার অত্যন্ত প্রিয় একটি কবিতা আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম।
বহুদিন আগে, একজন এই কবিতা আর একগুচ্ছ গোলাপ আমায় দিয়েছিলো।
বহুকাল পর, আজ হটাৎ তাহারে মনে পড়লো। তাহার সঙ্গে আবার যদি পথের বাঁকে কোনদিন দেখা হয়ে যায় , তখন জিজ্ঞাসিব তাহারে এ কাব্যের জন্ম ইতিহাস।
ভালো থাকবেন প্রিয়।
shahidulhaque77 শাহিদুল হক২৬ মে ২০১২, ০০:২৪
ehasan48 আলইমরান ২৬ মে ২০১২, ০০:০৩
অসম্ভব ভালো লাগলো অনু ভাই। কবিতার চেয়ে ভালো লাগলো আইডিয়া।
আমার এই কবিতাটি পড়ার অনুরোধ রইল।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:০৯
ধন্যবাদ ইমরান ভাই।
shahidulhaque77 শাহিদুল হক২৬ মে ২০১২, ০০:১১
খব ভাল লাগল। ধন্যবাদ। শুভেচ্ছা রইল।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:২১
ধন্যবাদ ভাইয়া।
shahidulhaque77 শাহিদুল হক২৬ মে ২০১২, ০০:২৫
কিন্তু এই কবিতার কবি কে ?
sabujo সবুজ ও২৬ মে ২০১২, ০০:১১
অনু ভাই,

এটা বোধ হয় আপনার পড়া এবং প্রিয় একটা কবিতার অংশ বিশেষ...

বিষয়টা আরেকবার দয়া করে ভাববেন কী...
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:২১
বহুদিন আগে, একজন এই কবিতা আর একগুচ্ছ গোলাপ আমায় দিয়েছিলো।
বহুকাল পর, আজ হটাৎ তাহারে মনে পড়ল
আমার অত্যন্ত প্রিয় এই কবিতাটি তাই আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম।
ভালো থাকবেন ভাইয়া।
Ilannita ইলা২৬ মে ২০১২, ০০:২৩
sabujo সবুজ ও২৬ মে ২০১২, ০০:২৮
এটা কবি জয় গোস্বামী'র "মেঘবালিকার জন্য রূপকথা" কবিতার অংশ বিশেষ...

http://reshad153.blogspot.com/2011/06/blog-post_10.html


আপনার পোস্টের নিচে সূত্র দিলে ভালো হয়...

অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো...
shahidulhaque77 শাহিদুল হক২৬ মে ২০১২, ০০:২২
প্রিয় অনু ভাই..................এটা কী ???????????????????????????
যতবার পড়ছি অবাক হচ্ছি!!!!!!!!!!!!!!!!!!!
shahidulhaque77 শাহিদুল হক২৬ মে ২০১২, ০০:২৩
কিন্তু আপনি যে কবিতাটা শেয়ার করছেন সে কথাটা লিখেন নি তো ? কেমন হলো বিষয়টি ?
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ০০:২৫
দুঃখিত সাহিদুল ভাই। লিখে দিচ্ছি।
mahalom72 মাহবুব মিঠু।।২৬ মে ২০১২, ০৫:২৩
কবিতার মধ্য দিয়ে সত্যিকারের মেঘ বালিকা ধরা দিল যেন! খুবই সুন্দর হয়েছে। ভাল থাকবেন।
tmboss172 তৌফিক মাসুদ২৬ মে ২০১২, ০৫:৫৩
"এই ছেলে , নাম কিরে তোর?"
আমি বললাম, "ফুস মন্তর"

ভালো থাকবেন অনু ভাই।
CDKHUKON খোকন চন্দ্র দে২৬ মে ২০১২, ০৭:২৮
শেয়ার করলাম ধন্যবাদ।
kabul2010 নাসির আহমেদ কাবুল২৬ মে ২০১২, ০৭:৩৩
এগিয়ে গিয়ে বলি তারে," তুমিই কি সেই মেঘবালিকা, তুমিই কি সেই?"
সে বলল," মনে নেই তো, আমার এসব মনে নেই তো।
আর হ্যাঁ, শোন,এখন আমি মেঘ নই আর।
সবাই এখন বৃষ্টি বলে ডাকে আমায়।"


আজ সকালে বিদ্যুৎহীন ঘরে ঘামছিলাম আর তোমার কবিতা পড়ছিলাম। কী অপূর্ব! কী অদ্ভূত প্রকাশ। কী রোমান্টিক। আমি অভিভূত, শিহরিত। এই কবিতার কবির প্রতি আমার শ্রদ্ধা জানাই। তার আরও কবিতা পড়তে চাই।

শুভ সকাল তোমার জন্য।
Unnan উননুর২৬ মে ২০১২, ০৯:১৩
মন ভুলানো সুন্দর
sajib77 ওসমানসাজীব২৬ মে ২০১২, ১০:১০
অনু ভাই অন্যর কবিতা নিজের নামে..।এমন কি কবিতাটি শেষ অংশ আপনি লিখছেন কবিতার শিরনামও.।এই ধরনের কাজ আশা করা অন্যায়.
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ১৭:১৭
ভাই আমি নিজের নামে দেই নি। মূল কবিতার নামটি জানি না বলেই এই শিরোনাম দেয়া।
sabujo সবুজ ও২৬ মে ২০১২, ১৭:৩৯
অনু ভাই,

মূল কবিতা এবং কবির নাম দুটোই গতকালই আপনাকে জানানো হয়েছে... (উপরের মন্তব্যে খুঁজে দেখুন)...

ভালো থাকুন...
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ১৭:৫১
ধন্যবাদ সবুজ ভাই।
somoynews ইসময়২৬ মে ২০১২, ১৩:২৮
আমি দুটোই চাই।আপনি ভালো থাকবেন ।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৬ মে ২০১২, ১৭:১৭
আপনিও ভালো থাকবেন।
moon13 রি )০(২৮ মে ২০১২, ০৮:৪১
খুব খুব প্রিয় একটা কবিতা আমার। কিন্তু পুরোটা দিলেন না কেন?
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৮ মে ২০১২, ১৪:৩৭
আমি এটুকুই জানতাম।
moon13 রি )০(২৯ মে ২০১২, ০২:০৭
বাকি কবিতাটুকু....

এমন সময় অন্য একটি বৃষ্টি আমায় চিনতে পেরে বললো,
"তাতে মন খারাপের কি হয়েছে??"
"যাও ফিরে যাও, লেখো আবার"
"এখন পুরো বর্ষা চলছে"
"তাই আমরা সবাই এখন নানান দেশে ভীষণ ব্যস্ত"
"তুমি-ও যাও মন দাও গে তোমার কাজে"
"বর্ষা থেকে ফিরে আমরা নিজেই যাবো তোমার কাছে"।

এক পৃথিবী লিখবো আমি
এক পৃথিবী লিখবো বলে ঘর ছেড়ে সেই বেড়িয়ে গেলাম।
ঘর ছেড়ে সেই ঘর বাঁধলাম গহন বনে
সঙ্গী শুধু কাগজ কলম
একাই থাকবো, একাই দুটো ফুটিয়ে খাবো
দু এক মুঠো ধুলোবালি
যখন যারা আসবে মনে তাদের লিখবো, লিখেই যাবো
এক পৃথিবীর একশো রকম স্বপ্ন দেখার
সাধ্য থাকবে যেই রূপকথার
সেই রূপকথা
আমার একার।

ঘাড় গুঁজে দিন লিখতে লিখতে
ঘাড় গুঁজে রাত লিখতে লিখতে
মুছেছে দিন
মুছেছে রাত
যখন আমার লেখবার হাত অসাড় হলো
মনে পরলো সাল কি তারিখ
বছর কি মাস সেসব হিসেব আর ধরিনি।
লেখার দিকে তাকিয়ে দেখি
এক পৃথিবী লিখবো বলে একটা খাতাও শেষ করিনি।
সঙ্গে সঙ্গে ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি এল, খাতার উপর
আজীবনের লেখার উপর
বৃষ্টি এল এই অরণ্যে।

বাইরে তখন গাছের নীচে নাচছে ময়ূর আনন্দিত
এ-গাছ ও-গাছ উড়ছে পাখি
বলছে পাখি, "এই অরণ্যে কবির জন্য আমরা থাকি"
বলছে ওরা, "কবির জন্য, আমরা কোথাও, আমরা কোথাও, আমরা কোথাও হার মানিনি"
কবি তখন কুটির থেকে
থাকিয়ে আছে অনেক দূরে
বনের 'পরে, মাঠের 'পরে, নদীর 'পরে
সেই যেখানে সারাজীবন বৃষ্টি পরে, বৃষ্টি পরে
সেই যেখানে কেও যায়নি
কেও যায়না কোনদিনি
আজ সে কবি দেখতে পাচ্ছে
সেই দেশে সেই ঝর্ণাতলায়
এদিক ওদিক ছুটে বেড়ায়
সোনায় মোড়া মেঘ হরিণী
কিশোর বেলার সেই হরিণী।
rashedanu রাশেদ আবদুল্লাহ অনু২৯ মে ২০১২, ০২:১৫
অনেক অনেক ধন্যবাদ।
moon13 রি )০(২৯ মে ২০১২, ০২:২৫

সাম্প্রতিক পোস্ট Star

সাম্প্রতিক মন্তব্যComment