বুধবার ৩০ জুলাই ২০১৪, ১৫ শ্রাবণ, ১৪২১ সাইনইন | রেজিস্টার |bangla font problem


এক গ্লাস দুধ

মানুষকে সাহায্য করুন। যতটা আপনার পক্ষে সম্ভব । হয়তো এই অল্প সাহায্যের ফল হিসেবে আপনি এমন কিছু পাবেন, যা কখনো আপনি চিন্তাই করেননি। ফেসবুকে ঘুরাঘুরি করতে যেয়ে আমি নিচের গল্পটা আবিষ্কার করি। গল্পটা হয়তো অনেকেই ইতিমধ্যে পড়ে থাকতে পারেন। তারপরেও, গল্পটা এতোই ভালো লেগেছিল যে, আপনাদের সাথে শেয়ার করার লোভ সংবরণ করতে পারলাম নাম। গল্পটা হুবুহু তুলে ধরা হল।

একদিন একটা গরীব ছেলে রাস্তায় হাঁটছিলো। সে তার লেখাপড়ার খরচ জোগাড় করার জন্য ঘরে ঘরে গিয়ে বিভিন্ন জিনিস বিক্রি করতো । ছেলেটার গায়ে ছিলো একটা জীর্ন মলিন পোষাক।
সে ভীষণ ক্ষুধার্ত ছিলো । ...
সে ভাবলো যে, পরে যে বাসায় যাবে, সেখানে গিয়ে সে কিছু খাবার চাইবে। কিন্তু সে যখন একটা বাসায় গেলো খাবারের আশা নিয়ে, সে ঘর থেকে একজন সুন্দরী মহিলা বেরিয়ে এলেন। সে খাবারের কথা বলতে ভয় পেলো।
সে খাবারের কথা না বলে শুধু এক গ্লাস পানি চাইলো। মহিলা ছেলেটার অবস্থা দেখে বুঝলেন যে সে ক্ষুধার্ত। তাই
তিনি ছেলেটাকে একটা বড় গ্লাস দুধ এনে দিলেন। ছেলেটা আস্তে আস্তে দুধটুকু খেয়ে বলল
"আপনাকে আমার কত টাকা দিতে হবে এই দুধের জন্য ?"
মহিলা বলল"তোমাকে কোন কিছুই দিতে হবে না। ছেলেটা বলল "আমার মা আমাকে বলেছেন কখনো করুণার দান না নিতে । তাহলে আমি আপনাকে মনের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ দিচ্ছি।"

ছেলেটার নাম ছিলো স্যাম কেইলি। স্যাম যখন দুধ খেয়ে ঐ বাড়ি থেকে বের হয়ে এল, তখন সে শারিরিকভাবে কিছুটা শক্তি অনুভব করলো। স্যাম এর বিধাতার উপর ছিলো অগাধ বিশ্বাস। তাছাড়া সে কখনো কিছু ভুলতো না।

অনেক বছর পর ঐ মহিলা মারাত্মক ভাবে অসুস্থ হয়ে পরলো। স্থানীয় ডাক্তাররা তাকে সুস্থ করতে চেষ্টা করেও ব্যার্থ হল। তখন তাকে পাঠানো হলো একটা বড় শহরের নামকরা হাসপাতালে। যেখানে দুলর্ভ ও মারাত্মক রোগ নিয়ে গবেষণা ও চিকিত্সা করা হয়। ডা: স্যামকেইলি কে এই মহিলার দায়িত্ব দেওয়া হলো। যখন ডাঃ স্যাম কেইলি শুনলেন যে মহিলা কোন শহর থেকে এসেছেন, তার চোখের দৃষ্টিতে অদ্ভুত একটা আলো যেন জ্বলে উঠলো। তিনি তাড়াতাড়ি ঐ মহিলাকে দেখতে গেলেন। ডাক্তারের এপ্রন পরে তিনি মহিলার রুমে ঢুকলেন। এবং প্রথম দেখাতেই তিনি মহিলাকে চিনতে পারলেন। তিনি মনে মনে সিদ্ধান্ত নিলেন যে, যেভাবেই হোক তিনি মহিলাকে বাঁচাবেনই। ঐদিন থেকে তিনি ঐ রোগীর আলাদাভাবে যত্ন নেওয়া শুরু করলেন। অনেক চেষ্টার পর মহিলাকে বাঁচানো সম্ভব হলো।

ডাঃ স্যাম কেইলি হাসপাতালের একাউন্টেন্ট কে ঐ মহিলার চিকিত্সার বিল দিতে বললেন, কারণ তার সাইন ছাড়া ঐ বিল কার্যকর হবে না। ডাঃ স্যাম কেইলি ঐ বিলের কোণায় কি যেনো লিখলেন এবং তারপর সেটা ঐ মহিলার কাছে পাঠিয়ে দিলেন। মহিলা ভীষণ ভয় পাচ্ছিলেন বিলটা খুলতে। কারণ তিনি জানেন যে এতো দিনে যে পরিমাণ বিল এসেছে তা তিনি সারা জীবনেও শোধ করতে পারবেন না। অবশেষে তিনি বিলটা খুললেন এবং বিলের পাশ দিয়ে লেখা কিছু কথা তার দৃষ্টি আকর্ষণ করলো। তিনি পড়তে লাগলেন "আপনার চিকিত্সার খরচ হলো পুরো এক গ্লাস দুধ।" এবং বিলের নিচের সাইন করা ছিলো ডাঃ স্যাম কেইলির নাম।
==================================================
ঘাস ফুল
৫৪ টি মন্তব্য
shahidulhaque77 শাহিদুল হক৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:২৫
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:২৯
AmiTarannum আমিনা তারান্নুম৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:২৫
অসাধারণ!
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:৩০

ধন্যবাদ
MainulAmin মাইনুল আমিন৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:৪১
বেশ ভালো লাগলো গল্পটি প্রিয় ঘাস ফুল। চালিয়ে যান অবিরাম । শুভকামনা রইলো অশেষ ---------------
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:৫১

ধন্যবাদ মাইনুল ভাই।
abdulhaque মোহাম্মাদ আব্দুলহাক৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:৪৫
চোখে জল এসেছে।

কৃতজ্ঞতা স্বর্গে নিয়ে যাবে।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:৫২
আমি যখন পড়েছিলাম আমারও তাই হয়েছিলো। ধন্যবাদ আব্দুলহাক ভাই।
Numan75 নুমান৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:২৮
বড় ভাইসাব!
আমারও আপনার মত অবস্থা হইছে
mdkamruliiuc মুহম্মদ কামরুল হাসান৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:৫৯
দারুণ গল্প।খুব ভাল লাগল।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:০৪
ধন্যবাদ কামাল ভাই।
mdkamruliiuc মুহম্মদ কামরুল হাসান৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:৩০
কামাল > কামরুল
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:৩৫
দুঃখিত হাসান ভাই। কান ধরেছি............
lnjesmin লুৎফুন নাহার জেসমিন৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:২৯
অনেক স্পর্শ করা গল্প । আগে পড়িনি ।
আমরা যদি এর ছিটেফোঁটা মায়াও নিজেদের মাঝে ধারণ করতে পারতাম ।
ধন্যবাদ ঘাস ফুল ভাই কে ।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:৩৯
এই রোদ এই বৃষ্টি। আব্দুলহাক ভাইয়ের ওখানে হট। আর এখানে দেখছি মমতাময়ী। এখানেই বুঝি নারী মনের সার্থকতা। ভালো থেকেন জেসমিন আপা।
lnjesmin লুৎফুন নাহার জেসমিন৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:২২
নিঃস্বার্থ ভাবে কারো উপকারে আসতে পারলে তবেই নিজেকে মমতাময়ী ভাববো । আমি চেষ্টা করি প্রতিদান আশা না করেই কারো কাজে লাগতে ।
তবে এমন করে এখনো সুযোগ হয় নি । আবার অনেক সময় সুযোগ আসলেও বেকার বলে সেভাবে অনেক কিছুই করতে পারি না ।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৪১
আক্ষেপ নয় জেসমিন আপা।
প্রতিজ্ঞায় আবদ্ধ হোক আপনার এই মনোবাসনা। আমি দোয়া করছি। যদিও এই পাপীর দোয়া কাজে লাগবে কিনা জানি না।
KohiNoor মেজদা৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:৫১
সাদামাটা ভাবে দেখলে কবিতা নয়, এটা মানবিকতা ও বাস্তবতা, মানুষের মনুষ্যত্ব জাগানোর এক সাহসী উচ্চারণ। ধন্যবাদ ঘাস ফুল।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২০:৫৯
আপনাকেও ধন্যবাদ মেজদা।
muktomon71 মুক্তমন ৭১ ৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:০৪
আগে পড়িনি তবে পড়ে ভালো লাগলো । ঘাস ফুলকে ধন্যবাদ ।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:০৭
ধন্যবাদ মুক্তমন ৭১ কেও।
Maeen মাঈনউদ্দিন মইনুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:১১
অসম্ভব ভালো লাগলো লেখাটি
অনেক ভালো কথা আমরা প্রতিদিন পড়ি আর শিখি
শুধু প্রয়োগের বেলায় স্বার্থপরতা এসে বাসা বাঁধে।

প্রতিদানের আশা না করে উপকার করলে সত্যিই স্বর্গীয় সুখ পাওয়া যায়।
তাৎক্ষণিকভাবে সেটা অনুভব করা যায়।

আপনার জন্য অনেক শুভেচ্ছা
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৩২
আপনি ঠিকই বলেছেন মইনুল ভাই। ঠিক উপদেশ দেয়ার মতো। উপদেশ দেয়া সহজ কিন্তু নিজে মেনে চলা কঠিন।
sulary আলভী৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:২০
এক কথায় অসাধারন......আপনার ডাক্তারের নাম স্যাম আর আম ভিক্ষুকের নাম ও শ্যাম...দারুন মিল...
তবে আপনার শকুনের সেই কাকতালিয় মনে হচ্ছে//////////// আমি আপনাকে দুই গ্লাস দুধ খাওয়াবো আপনি কি আমার মনের রোগ সারাতে পারবেন?



rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:২৯
আলভী ভাই, মনে রোগটা সারাতে পারতাম যদি আপনি আমাকে এক গ্লাস দুধ খাওয়াতেন। দুই গ্লাস দুধ খাওয়ার পর আর সময় কোথায় যে আপনার মনের রোগ সারাবো। আমারতো টয়লেটেই সময় চলে যাবে। তাছাড়া আপনিতো জানেনই আমি যে বহুমুত্র রোগী।
sulary আলভী৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০১
তাহলে দিলাম এক গ্লাস,
মাইনাস না হয়ে হবে প্লাস!

rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০৭
আমি করমুনা এই পচা স্যারের ক্লাস।
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৪৯
মাথা আওলাইয়া গেছিলো। তাই কোন জায়গায় স্যাম আর কোন জায়গায় শ্যাম হইয়া গেছে। আপনে যেমনে পিছে লাইগ্যা রইছেন, মাথা ঠিক থাকে ক্যামনে কন।
Numan75 নুমান৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৩০
ভাই অনেক ভাল লাগল

চোখে পানি এসে গেল
rodela2012 ঘাস ফুল৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৩৭
আপানার চোখের পানি আমি মুছতে চাইনা।
যাতে এটাতেই ধুয়ে যায় আমার মনের কালিমা।
sulary আলভী৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৫৭
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০০:১৯
Rabbani রব্বানী চৌধুরী৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩:৩৮
ডাঃ স্যাম কেইলির আদর্শ ছড়িয়ে যাক মানুষের মাঝে। ভালো লাগলো গল্পের কথা। ভালো থাকবেন।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০০:১৩
আমিও আপনার মতোই চাই রব্বানী ভাই। ধন্যবাদ আপনাকে।
jamalhossains জামাল হোসেন সেলিম৩০ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩:৫৮
বেশ ভালো লাগলো গল্পটি। অনেক অনেক শুভেচ্ছা আপনার জন্য। সেই সাথে অনেক অনেক ফুল।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০০:১৭


আপনাকেও ধন্যবাদ আর সেই সাথে অনেক ফুল জামাল ভাই।
BABLA মোহাম্মদ জমির হায়দার বাবলা ৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০২:২৭
গল্পটি বেশ ভালো লাগলো। গল্পলেখার হাত আপনার দারুন। লিখতে থাকুন অবিরত।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০২:৩১
ধন্যবাদ বাবলা ভাই। আপনার জন্য রইলো ঘাস ফুলীয় শুভেচ্ছা।
fardousha ফেরদৌসা৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০২:৩২
খুব সুন্দর একটা গল্প শেয়ার করলেন।

আমাদের কত কিছুই শেখার আছে, জানার আছে।

মানব সেবার চেয়ে বড় সেবা আর কি আছে।

আমারও কারো জন্য কিছু করতে পারলে খুবই ভাল লাগে।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৭:৫৫
আপনার ভালো কাজগুলো অটুট থাক নিরন্তর। ধন্যবাদ ফেরদৌসিা আপা।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৭:৫৬
সংশোধনঃ ফেরদৌসা
Shimi12 ফেরদৌসী বেগম (শিল্পী)৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০৩:০০
হুম। খুবই সুন্দর একটি গল্প। গল্পটা আমারও কাছে আছে।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৭:৫৮
আপা দুধ কি আমার জন্য?
Shongkhobas সেলিনা ইসলাম৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ০৬:৩৯
যার সামর্থ্য আছে সে ইচ্ছা করলেই যেকোন ভাল কাজ করতে পারে । আর সেই ভাল কাজের ফল কখনোই বৃথা যায়না। শিক্ষনীয় গল্প শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৭:৫৯
সেলিনা আপা আপনাকেও ধন্যবাদ
ANIKA2012 আমির হোসেন৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১০:০২
জনাব ঘাসফুল ‘এক গ্লাস দুধ’ নামে যে গল্পটি আপনি প্রকাশ করেছেন সেই গল্পটি যেহেতু আপনার নিজের নয় ফেসবুক থেকে হাওলাত করা সেহেতু প্রকৃত লেখকের নামটি উল্লেখ করলে আরো বেশি ধন্যবাদ পেতেন। তার পরও এমন একটি শিক্ষামূলক গল্প পোস্ট করা জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। লিখতে থাকুন। পাশে থাকুন। ভাল থাকুন।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৮:০৬
ফেসবুকেও এর কোন লেখকের নাম ছিল না। আর গল্পটা আমি নামের জন্য এখানে তুলে ধরি নাই। তুলে ধরেছি শিক্ষার জন্য। আশা করছি, আপনি গল্পাকার কে না খুঁজে এর শিক্ষাটা গ্রহণ করবেন। ধন্যবাদ আমির ভাই।
sulary আলভী৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১২:১৯
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৮:১০
baganbilas1207 কামরুন্নাহার ৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৫:৪৫
ধন্যবাদ ঘাস ফুল। সুন্দর একটা গল্প উপহার দেবার জন্য। গল্পটি খুব আবেগপ্রবন সেই সাথে শিক্ষনীয়।
rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৮:০৭
ধন্যবাদ নাহার আপা।
sulary আলভী৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ১৮:৫৯
আবার কখন আমায় ছাড়িয়ে গেলে?
আমি কিন্তু এত সহজে যাচ্ছিনা ভুলে!

rodela2012 ঘাস ফুল৩১ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩:৫৮
ভুলে ভরা জীবনটা যে
ফেলে এসেছি তোমার নদীর কূলে
কেমনে ভুলিব তোমায় বলো
ভালোবাসি যে তোমায় সব ফেলে।
lipuni মাহবুবা আকতার০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, ০০:৩৬
গল্পটা খুব ভালো লেগেছে ।আপনার জন্য আন্তরিক শুভেচ্ছা রইল ।