বৃহস্পতিবার ২৪ জুলাই ২০১৪, ৯ শ্রাবণ, ১৪২১ সাইনইন | রেজিস্টার |bangla font problem


বাতাসের গল্প



আব্দুস সালাম। একজন দরিদ্র রিকশাচালক। জীবিকার জন্য বেছে নেয়া তার একমাত্র পথ। ভালোই ছিল তার সাদামাটা জীবন যাপন। দুই ছেলে, এক মেয়ে আর তার বউ, এই নিয়ে তার সংসার। মা-বাবা গত হয়েছেন অনেক আগেই। রিকশার চাকার মতোই তার জীবনের চাকাটাও প্রতিনিয়ত ঘোরে। কখনো সুখ, তো কখনো দুঃখ। তারপরেও সুখে ছিল সালামের পরিবার।

এলাকার সবাই সালামকে বেশ ভালোবাবে চিনে। এমনকি আশে পাশের আরও দু-চারটে গ্রামের অনেক মানুষও। সদালাপী আর ভদ্রতার জন্য সবাই তার রিকশা যাতায়াত করে। যারা করে না, তারা ভয় পায়, সে খুব দ্রুত রিকশা চালায় বলে। একবার মোটরসাইকেলের সাথে পাল্লা দিয়ে তার রিকশা জিতেছিল। সেদিন, সে যেন বাতাসের মতো রিকশাটা চালিয়ে ছিল। সেই থেকে তার নাম হয়ে যায় বাতাস। আর বাতাসেই উড়ে গেলো তার আব্দুস সালাম নামটি।

গ্রামের নাম খলাপাড়া। বেশ বড় একটি গ্রাম। শীতলক্ষ্যা নদীর পশ্চিম পাড় ঘেঁসে। সুজলা সুফলা আর শস্য শ্যামলা একটি গ্রাম। এ গ্রামের বেশীর ভাগ জমিই চার ফসলী। তাই ভিন্ন ভিন্ন ঋতুতে গ্রামটি ভিন্ন ভিন্ন সৌন্দর্য নিয়ে আবির্ভূত হয়। একটি জুটমিল, একটি সাদা সিমেন্টের কারখানা, দুইটি উচ্চ বিদ্যালয়, পাঁচটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তিনটি মাদ্রাসা আর নয়টি মসজিদ নিয়ে বেশ গর্বের সাথে বাস করছে এ গ্রামের মানুষজন। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ঘাঁটলেও গ্রামটির নাম পাওয়া যায়। ‘ঘোড়াশাল ম্যাসাকার’ নামে পাক হানাদারদের এক জঘন্য হত্যাযজ্ঞের সাক্ষী হয়ে আছে এ গ্রামেরই জুটমিলটি। ১৯৭১ সালের ১লা ডিসেম্বর জুটমিলটির অধিকাংশ অফিসারকে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করা হয়েছিলো।

নোংরা রাজনীতি’র চরমমুল্য গুনতে হয়েছে জুটমিলটির অনেক শ্রমিক সংগঠক আর শ্রমিককে তাদের জীবন দিয়ে। প্রায় দেড় দুই হাজারের মতো শ্রমিক কাজ করে জুটমিলটিতে। তাই মাস শেষে শ্রমিকদের কাছ থেকে একটা মোটা অঙ্কের চাঁদা উঠায় এর শ্রমিক সংগঠনটি। মালিক পক্ষের সাথে আঁতাত করে শ্রমিকদের বোনাস না দিয়ে, হাতিয়ে নেয় আরও টাকা। এছাড়া, টাকার বিনিময়ে অবৈধ শ্রমিক নিয়োগ, গরহাজির শ্রমিকের হাজিরা দেখিয়ে টাকা, পাটের ডিলারের কাছ থেকে চাঁদা, কাঠের ডিলারের কাছ থেকে চাঁদা ইত্যাদি আরও অনেক কিছু। এই মোটা অঙ্কের টাকার জন্যই সরকার পরিবর্তনের সাথে সাথে এর শ্রমিক সংগঠনেরও ক্ষমতার পরিবর্তন হয়। শ্রমিক নেতা কাশেম তখন সংগঠনটির সভাপতি।

জুটমিলটি থেকে পৌনে এক কিলোমিটার উত্তরে বাশাইর বাজার। গ্রামটির ব্যাবসার কেন্দ্রবিন্দু। শনিবার এবং মঙ্গলবার সপ্তাহের এই দুইদিন এখানে হাট বসে। তখন এই বাজারে প্রচুর লোকের সমাগম হয়। হাটবার ছাড়াও বাজারটিতে প্রতিদিন অনেক লোকের আনাগোনা হয়। বাতাসের রিকশাও তাই প্রিতিদিন ব্যাস্ত সময় কাটায়। বিভিন্ন জায়গা থেকে গ্রামের লোকজন, কোন সময় অন্য গ্রামের লোকজনও তার রিকশায় যাতায়াত করে।

সেদিন ছিল গ্রীষ্মের দুপুর। কাঠ ফাটা রোদ। হাটবারও ছিল না। বাতাস একটু দেরি করে রিকশা নিয়ে বের হল। ‘আইচকা রিকশা বাওনের দরকার নাই, যেই গরম পড়ছে।’ বউয়ের কথায় থামল না বাতাস। ‘বিয়ান বেলা বাইর অই নাই, অহন না বাইর অইলে কাইল খামু কি? চিন্তা কইরো না, রিকশার চাক্কায় পেডল মারলে শইল জুরাইয়া জাইব।’

বাতাস রিকশা নিয়ে সোজা বাশাইর বাজারে চলে গেলো। অনেকক্ষণ যাবত বসে আছে। কোন যাত্রী নেই। কাছেই একটা চায়ের দোকান। বেশ জমজমাট রাজনৈতিক আড্ডা। কেন্দ্রবিন্দুতে শ্রমিক নেতা কাশেম। আড্ডার এক পর্যায়ে কাশেম উঠে এলো। ‘বাতাস, ল যাই’। কাশেমকে নিয়ে ছুটল বাতাসের রিকশা। সেই দুরন্ত গতি। প্রানোচাঞ্চলে ভরা বাতাসের গতি। শীতলক্ষ্যার ধার ঘেঁসে কাঁচা পাকা রাস্তা ধরে। ‘কিরে বাতাস, এতো জোড়ে যে তুই রিকশা চালাছ, তোর ডর লাগে না।’ ‘নেতায় যে কি কন, ডরামু ক্যা, আমি অমনে চালাইয়া আনন্দ পাই।’

হঠাৎ তার রিকশার চাকা থেমে গেলো। মিল থেকে কিছু দূরে। পাশে একটি বাঁশঝাড়। রাস্তা থেকে একটু নেমে। পাঁচ জনের একটি দল রিকশার গতি রোধ করলো। হাতে তাদের ধারালো রামদা, চাপাতি আর ছুরি ছাড়া কিছুই ছিলোনা। যদিও অবৈধ আগ্নেয় অস্ত্রের ঝনঝনি তখনকার দিনেও ছিল। দিনের আলোয় দশ মিনিটের মধ্যেই নিভে গেলো কাশেমের জীবেনর আলো। নির্বাক নিষ্প্রাণ বাতাস শুধু চেয়ে দেখল। মুহূর্তের দমকা হাওয়ার মতো সব কিছু ওলট পালট করে দিয়ে গেলো তার জীবেনর। জুটমিলটির নোংরা রাজনীতির কালো অধ্যায়ে যুক্ত হল আরেকটি নাম।

খুনিরা তখনো ধরা পরে নাই। বাতাস ধরা পরল। বছর খানেক পরের কথা। ধ্বংস স্তূপের মতো একটা দেহ নিয়ে বাতাস ছাড়া পায়। কিন্তু জীবনের গতিটা পুলিশের ইন্টারোগেট সেলে রেখে এলো। সময়ের চাকার মতো টাকার রাজনীতির চাকা এখনও ঘুরছে জুটমিলটিতে। সেই সাথে ঘুরছে মিলের চাকাও। কিন্তু থামিয়ে দিয়ে গেলো বাতাসের রিকশার চাকা। জীবন চলে এখন তার প্রতিনিয়ত মৃত্যুর সাথে লড়াই করে।
==================================================্
ঘাস ফুল
৪০ টি মন্তব্য
sopnerdin45 এনামুল রেজা২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৪৪
কি অদ্ভুত যে হয় জীবন..বাতাসেরা চিরদিন ফেঁসে যায়...

অবাক হচ্ছি, জনাব ঘাসফুলের গল্প পড়িয়া। তিনি এত চমৎকার লেখেন, সেটা জানার সুযোগ করে দেবার জন্য কৃতজ্ঞতা।
আমি মুগ্ধ হয়ে পড়লাম। গল্পটার ছোট্ট অবয়বে অনেক কিছু বলে হয়ে গেছে...

ভালবাসা।
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০০
ভাইজান শরম দিলেন? একটা চেষ্টা নিছি মাত্র। আপনাদের কাছাকাছিতো আর যেতে পারবোনা। তবে আপনার ভালো লেগেছে জেনে ধন্য হলাম।
তারপর কেমন যাচ্ছে দিনকাল অরিত্রদা?
shsiddiquee ছাইফুল হুদা ছিদ্দীকি২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৪৫
অসাধারন সুন্দর লেখনী।
সালাম মানে বাতাসের ঐ দিন বউ বের হতে নিষেধ করেছিলো।
কিন্তু বাতাস বউয়ের কথা শুনেনি।
শুনলে হয়তো এই পরিণতি হতোনা।


অশেষ ধন্যবাদ।
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০৩
ছাইফুল ভাই, আপনাদের ধন্যবাদ,
আমার লেখার হোক ছাদ।
baganbilas1207 কামরুন্নাহার ২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৪৭
আপনার লেখাটি পড়তে ভাল লাগলো। নোংরা রাজনীতি -র অক্টপাস -এ জড়িয়ে হারিয়ে গেল একটি সুন্দর জীবন। এটাই হয়ে আসছে, কবে যে আমরা এ থেকে মুক্তি পাব।

ধন্যবাদ আপনাকে।
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০৪
অবশ্যই একদিন মুক্তি পাবো। আমি বরাবরের মতোই আশাবাদী।
sulary আলভী২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২১:৫১
আমাকে একা বিমানে রেখে,
আপনি যাচ্ছেন গল্প লিখে?
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০৭
কই আর লিখতে পারলাম
আপনার জ্বালায় মরলাম।
বিমান নেমেছে কোন কালে
আপনার তরী এখন কোন খালে?
muktomon71 মুক্তমন ৭১ ২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০৫
ঘাস ফুল কে শুভেচ্ছা । ভাল লাগলো গল্প পড়ে ।
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:০৯
মুক্তমন ৭১'র ভালোলাগা, আমার ভালো লেখার অনুপ্রেরণা।
muktomonbangla মুক্তমনবাংলা ২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ১৫:৪০
আমার মুক্তমন৭১ আইডি হ্যাক হওয়ায় নতুন নামে আইডি খুলেছি । আশা করি সাথে থাকবেন ।
Maeen মাঈনউদ্দিন মইনুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:১৮
বাতাসের গল্পে মুগ্ধ আমি। বিশেষত লেখার জন্য একটি মহৎ বিষয়কে আপনি বেছে নিয়েছেন। বর্ণনাও বেশ ভালো লেগেছে।

যেহেতু গল্প তাই ভাষার ব্যবহারে আরেকটু সাবধান হলে আরও ভালো করবেন:
>“এ গ্রামের বেশীর ভাগ জমিই চার ফসলী।” এই তথ্যটি মূল গল্পের জন্য কতটুকু দরকার দেখবেন।
> নির্বাক নিষ্প্রাণ বাতাস শুধু চেয়ে দেখল।” আমি ভেবেছিলাম বাতাসও বুঝি মারা গেছে।

ঘাস ফুলকে অনেক শুভেচ্ছা
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৪৯
মইনুল ভাই, আপনার সমালোচনা আমি মাথা পেতে নিলাম।

“এ গ্রামের বেশীর ভাগ জমিই চার ফসলী।” এই তথ্যটি মূল গল্পের জন্য কতটুকু দরকার দেখবেন।
যদি আপনি তাই বলেন, তবেতো আমার মনে হয়, আমি দু'তিন লাইনেই মুল গল্পটা বলে দিতে পারতাম। আমার কি তাই করা উচিৎ ছিল? গল্প বা উপন্যাসে অনেক কথাই থাকে যা মুল গল্প বা কাহিনীর সাথে যায় না। বাতাসের গ্রামের সাথে বাতাসের জীবন যাত্রাও মিশে আছে। তাই তার গ্রাম সম্বন্ধে সংক্ষেপে একটু ধারণা মাত্র।

নির্বাক নিষ্প্রাণ বাতাস শুধু চেয়ে দেখল।” আমি ভেবেছিলাম বাতাসও বুঝি মারা গেছে।
এটা করা হয়েছে ঘটনাটিতে একটু, বেশী না, নাটকীয়তা আনতে।
Maeen মাঈনউদ্দিন মইনুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ১৫:২৫
farida143 ফৈরা দার্শনিক২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:২৭
একেবারে সত্যি মনে হল। এমন নিপাট ভদ্র লোকদের সাথে এমনি হয়
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৫১
সত্যিই বলেছেন ফৈরা ভাই। গরীব আর অসহায়দের যত দোষ। নিয়তি এদের নিয়েই বেশী খেলা করে।
farida143 ফৈরা দার্শনিক২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩:২৩
এধরনের লেখা আরো লেখার অনুরোধ
sulary আলভী২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৩২
ওদিকে হুলুস্হুল কান্ড বেদে গেছে,
আপনি এখনো পড়ে আছেন পিছে?
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৫২
আগে গেলে বাঘে খায়
পিছে গেলে লেখা পায়।
Rabbani রব্বানী চৌধুরী২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৪৯
ভালো লাগলো গল্পের কথায়, দেশে শুদ্ধ রাজনীতির বড় প্রয়োজন। উন্নত রাজনৈতিক দর্শন ছাড়া অর্থনৈতিক মুক্তিও সম্ভব না। ভালো থাকবেন প্রিয় ঘাসফুল।
rodela2012 ঘাস ফুল২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২২:৫৪
আপনি সত্যি বলেছেন রব্বানী ভাই, সুস্থ রাজনীতি ছাড়া অর্থনৈতিক মুক্তি সম্ভব না।
sopnerdin45 এনামুল রেজা২৫ জানুয়ারি ২০১৩, ২৩:৫৮
আমি মোটেও বাড়িয়ে বলিনি ভাইজান। বোঝা যায়...আপ্নার ঝুলিতে ম্যাজিক আছে, বুঝতে পারা যায়....
আজকের দিনটা ভাল গেছে বলবনা, কিন্তু কালকে খারাপ থাকবনা থাকবনা....
আপনি আছেন তো ভাল?
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০০:৪৮
অরিত্রদা, বাতাস দিলেন নাকি!। চেষ্টা নিতাছি মাত্র। মঞ্চের শোভা বর্ধন করবেন আপনি, আপনারা। আর আমি ঘাস ফুল, নিচে বসে তালি দিতে পারলেই ধন্য।
sopnerdin45 এনামুল রেজা২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ১৪:৪৫
নেভার সে, নেভার এগেইন....

আমরা একি পথের, একি দলের যাত্রি...

asrafulkabir আশরাফুল কবীর২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০০:১৮
সেদিন ছিল গ্রীষ্মের দুপুর। কাঠ ফাটা রোদ। হাটবারও ছিল না। বাতাস একটু দেরি করে রিকশা নিয়ে বের হল। ‘আইচকা রিকশা বাওনের দরকার নাই, যেই গরম পড়ছে।’ বউয়ের কথায় থামল না বাতাস। ‘বিয়ান বেলা বাইর অই নাই, অহন না বাইর অইলে কাইল খামু কি? চিন্তা কইরো না, রিকশার চাক্কায় পেডল মারলে শইল জুরাইয়া জাইব।’

#শুভেচ্ছা আপনাকে ঘাসফুল..অভিনন্দন সুন্দর গল্পের জন্য

#বাতাসের কাহিনী টেনে নিয়ে গেছে অনেকটা দূর পর্যন্ত...চারপাশের বর্ণনা রয়েছে..রয়েছে জুটমিলকে কেন্দ্র করে নোংরা রাজনীতির খেলার সামারি

#এগিয়ে চলুন,ভাল থাকুন সবসময়, এ প্রত্যাশা
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০০:৫০
কবীর ভাই, খুব ভালো লাগলো আপনার মন্তব্য পেয়ে।
pias2021 ময়ূরাক্ষী২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০১:৩৩
সত্যি কথা বলতে অনেক দিন পর একটা ভাল গল্প পরলাম। ধন্যবাদ আপনাকে।
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০১:৩৯
তোমার ধন্যবাদ পেয়ে আমিও ধন্য ময়ূরাক্ষী। ভালো থেকে সতত।
Shimi12 ফেরদৌসী বেগম (শিল্পী)২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০২:০৬
নিজের কাছেই প্রশ্ন থেকে যায়। দেশ স্বাধীন হয়েছে অথচ আমরা কি স্বাধীন ভাবে বাচতে পারছি?? তখন ভীষণ কষ্ট হয় মনে উত্তর না পেয়ে। অসম্ভব সুন্দর একটি গল্প পড়লাম। ভাল লাগল।
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০৩:৪৬
ধন্যবাদ আপা। অনেক পরে হলেও আপনার মন্তব্য পেলাম।
mitro আমি অনিমেষ মিত্র ২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০২:১৯
সময়ের চাকার মতো টাকার রাজনীতির চাকা এখনও ঘুরছে জুটমিলটিতে। সেই সাথে ঘুরছে মিলের চাকাও। কিন্তু থামিয়ে দিয়ে গেলো বাতাসের রিকশার চাকা। জীবন চলে এখন তার প্রতিনিয়ত মৃত্যুর সাথে লড়াই করে।

rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০৩:৫১
ধন্যবাদ মিত্রদা।
Ashraful আশরাফুল ইসলাম ( এক জন মানুষ )২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০২:৪২
প্রথম বার আপনার লেখা পরলাম। খুব ভাল লাগলো। গল্পটি চমৎকার
ধন্যবাদ
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০৩:৫৩
তোমাকেও ধন্যবাদ আশরাফুল গল্পটা পছন্দ তোমার পছন্দ হয়েছে বলে।
fardousha ফেরদৌসা২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০৩:০০
সময়ের চাকার মতো টাকার রাজনীতির চাকা এখনও ঘুরছে জুটমিলটিতে। সেই সাথে ঘুরছে মিলের চাকাও। কিন্তু থামিয়ে দিয়ে গেলো বাতাসের রিকশার চাকা। জীবন চলে এখন তার প্রতিনিয়ত মৃত্যুর সাথে লড়াই করে।


এমন নোংরা রাজনীতির কবলে পড়ে কত বাতাসের জীবন যে প্রতিদিন তছনছ হয়ে যাচ্ছে ।

আপনি তো গল্প লেখায় খুবই পারদর্শী । শুভেচ্ছা আপনার জন্য।
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০৩:৫৫
কি যে বলেন আপা, আপনাদের কাছে আমিতো নস্যি মাত্র।
lnjesmin লুৎফুন নাহার জেসমিন২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ০৪:২৯
লেখক কি কবে বলেছিলেন , সে গল্প দাঁড় করাতে পারছেনা । এটা তাহলে কি ?
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:২৩
অনুরোধে ঢেঁকি গেলা বলতে পারেন। তবে গল্প হয়েছে কিনা জানিনা। চেষ্টা নিয়েছি মাত্র। ধন্যবাদ আপা।
AhmedRabbani আহমেদ রব্বানী২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ১৫:৫৩
বাতাসের গল্প.....চমৎকার শিরোনাম।ভাল লাগল।
rodela2012 ঘাস ফুল২৬ জানুয়ারি ২০১৩, ১৯:২৪
ধন্যবাদ রব্বানী ভাই।